শনিবার   ১৬ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ১ ১৪২৬   ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

দৈনিক জামালপুর
৭৪৪

আইরিশ উপকথা “বানশি”

প্রকাশিত: ১৬ অক্টোবর ২০১৯  

ভূমি প্রকাশের প্রকাশিত “আরবান লেজেন্ডস”, ডানে লেখক লুৎফুল কায়সার

ভূমি প্রকাশের প্রকাশিত “আরবান লেজেন্ডস”, ডানে লেখক লুৎফুল কায়সার

বানশি অনেক পুরোনো একটা আইরিশ আরবান লিজেন্ড। মধ্যযুগীয় আইরিশ রূপকথাগুলোতে সর্বপ্রথম এদের কথা উঠে আসে।

 

এরা কোন আইরিশম্যানকে তার মৃত্যু সংকেত দেয়। আইরিশ বংশোদ্ভুত লোকের সামনে এরা মহিলার রূপ ধারণ করে হঠাৎ আবির্ভুত হয় এবং করুণ সুরে কাঁদে। তারপর হাওয়ায় মিলিয়ে যায়। বানশির সম্মুখে পড়ার সাত দিনের মধ্যে সেই ব্যক্তি মারা যাবে।

 

যিনি মারা যাবেন তিনি যদি মহিলা হন তবে তার স্বামিকেও দেখা দিতে পারে বানশি। একবার এক জমিদারের স্ত্রী প্রচণ্ড অসুস্থ হয়ে গেলেন। ডাক্তার আর স্ত্রীর দেখভাল নিয়ে একেবারেই ব্যস্ত হয়ে গেলেন সেই জমিদার। তো সন্ধ্যাবেলা তিনি বেরুলেন একটু হাঁটাহাঁটি করতে। আর এমন সময় তিনি খুব গা ছমছমে একটা কান্নার শব্দ পেলেন! রাস্তাটা বেশ নির্জন ছিল, তবুও তিনি সাহস করে শব্দের উৎসের দিকে গেলেন এবং দেখলেন একটি গাছের নিচে দাঁড়িয়ে সাদা পোশাক পরা এক যুবতী কাঁদছে। তিনি যখনই তার সাথে কথা বলতে গেলেন, তখনই তার চোখের সামনেই হাওয়ায় মিলিয়ে গেল নারী!

 

বাড়ি এসে নায়েবকে এই রহস্যময়ী নারীর কথা জানালেন জমিদার। নায়েব বয়স্ক লোক ছিলেন। তিনি জমিদারকে জানালেন তার স্ত্রী হয়তো আর বাঁচবে না, কারণ তিনি বানশিকে দেখেছেন। পরের দিনই মহিলা মারা যান।

 

সাধারণত খুব ভোরবেলা এবং সন্ধ্যাবেলাতে বানশিকে দেখা যায়। বানশিকে কেউ দেখার এক মিনিটের মধ্যেই বানশি অদৃশ্য হয়ে যায়।

 

লেজেন্ড বলে যে বানশির শরীর কুয়াশা দিয়ে তৈরি আর সে মৃত মানুষের আত্মা খেয়ে বেঁচে থাকে।

বানশি আপনার বা আপনার স্ত্রীর মৃত্যু সংকেত দিবে যদি আপনি আবা আপনার স্ত্রী আইরিশ রক্ত বহন করে। নতুবা নয়।

 

এভাবেই বানশি’রা গাছের নিচে বসছে কাঁঁদতো।
এভাবেই বানশি’রা গাছের নিচে বসছে কাঁঁদতো। অনেকেই খুব ভয়ও পেত।।।

একবার আমেরিকাতে দুইজন লোক হেঁটে যাচ্ছিলেন নির্জন রাস্তাতে। হুট করে একজন আরেকজনকে বললেন, “ওই যে! গলির সামনে দাঁড়িয়ে মেয়েটা কাঁদছে, তাকে চেনো?” অপরজন অবাক হয়ে জানালেন যে ওখানে কোন মেয়ে নাই! কিন্তু আগেরজন তখনো মেয়েটিকে দেখার দাবী করলেন। কিন্তু কিছুক্ষণ পর তিনিও আর মেয়েটিকে আর দেখতে পেলেন না। অপর লোকটি বেশ পণ্ডিত ছিলেন। তিনি অপর লোকটির কাছে জানতে চাইলেন তার পরিবারে কেউ আইরিশ বংশোদ্ভূত আছেন কিনা?

 

লোকটি জানালেন যে তার স্ত্রী আইরিশ এবং তিনি অনেকদিন ধরে বেশ অসুস্থ। তখন অপর লোকটি জানালো যে তিনি যাকে দেখেছেন সে আসলে বানশি। তার স্ত্রী আর বাঁচবেন না। পরের দিনই তার স্ত্রী মারা যান!

 

আয়ারলয়ান্ডের যত লেজেন্ড আছে তার মধ্যে অন্যতম বিখ্যাত হল বানশি! মৃত্যু সংকেত দেওয়া লেজেন্ডগুলোর মধ্যে গোটা পৃথিবীতে সবচাইতে বিখ্যাত তাঁরা।

 

এরকম আরো বিখ্যাত আরবান লেজেন্ডস সম্পর্কে জানতে হলে আপনারা লুৎফুল কায়সারের আরবান লেজেন্ডস বইটি পড়তে পারেন। বইটি প্রকাশিত হয়েছে ভূমিপ্রকাশ থেকে। বইটি আপনারা রকমারি.কম থেকে অনলাইনে কিনতে পারবেন। অনলাইনে বইটি কিনতে হলে নিচের লিংকটিতে যেতে হবে: https://www.rokomari.com/book/154381/urban-legends

লেখক লুৎফুল কায়সার এর আরবান লেজেন্ডস’র দ্বিতীয় চ্যাপ্টার
ভূমি প্রকাশ থেকে প্রকাশিত লেখক লুৎফুল কায়সার এর আরবান লেজেন্ডস’র দ্বিতীয় চ্যাপ্টার

[লুৎফুল কায়সারের জন্ম রাজশাহীতে। বর্তমানে তিনি রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে  অধ্যয়নরত। বই পড়তে ভালোবাসেন আর সেখান থেকেই লেখালেখি শুরু। ভৌতিক ব্যাপার-স্যাপারের প্রতি তার আলাদা আগ্রহ আছে।  আরবান লেজেন্ডস  তার প্রথম একক গ্রন্থ। তার অন্যান্য বিগুলো হচ্ছেঃ  ক্রিপিপাস্তাস এবং দ্য গ্রেট গড প্যান - দ্য ক্যাসেল অফ অটরান্টো। একুশে বইমেলা ’২০ এ প্রকাশিত হতে যাচ্ছে আরবান লেজেন্ডস দ্বিতীয় চ্যাপ্টার।]

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর