• বৃহস্পতিবার   ২৬ নভেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১১ ১৪২৭

  • || ১০ রবিউস সানি ১৪৪২

দৈনিক জামালপুর

আজ সশস্ত্র বাহিনী দিবস

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ২১ নভেম্বর ২০২০  

আজ ২১ নভেম্বর সশস্ত্র বাহিনী দিবস। স্বাধীনতাযুদ্ধ চলাকালে ১৯৭১ সালের এই দিনে সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীর সমন্বয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে গঠিত হয়েছিল বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী। ১৯৭১ সালের এই দিনে বাংলাদেশের সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনী সম্মিলিতভাবে পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে আক্রমণের সূচনা করে তাই ২১ নভেম্বর সশস্ত্র বাহিনী দিবস হিসেবে পালিত হচ্ছে।

 

সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের অতন্দ্র প্রহরী। শুধু দেশেই নয়, বিদেশের মাটিতে আমাদের সশস্ত্র বাহিনীর রয়েছে গৌরবােজ্জ্বল ভূমিকা। যার প্রশংসায় পঞ্চমুখ জাতিসংঘ। জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনী শান্তিরক্ষার পাশাপাশি ঐ সকল দেশের আর্থিক ও সামাজিক উন্নয়নে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ এবং ঐ সকল দেশের অসহায় মানুষের পুনর্বাসনে সার্বিক সহযােগিতা করে যাচ্ছে।

 

জাতীয় উন্নয়নে সশস্ত্র বাহিনীর গৌরবােজ্জ্বল অবদান আজ সর্বজন স্বীকৃত। সশস্ত্র বাহিনীর প্রতি এদেশের জনগণের রয়েছে অগাধ আস্থা, বিশ্বাস ও ভালােবাসা। বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের কল্যাণে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতা ছাড়াও দেশের অবকাঠামাে ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন, ছিন্নমূল মানুষের জন্য বাসস্থান তৈরি করা এবং অন্যান্য জনকল্যাণমুখী কাজে সশস্ত্র বাহিনী নিবেদিত প্রাণ। ছবিসহ ভােটার তালিকা, জাতীয় পরিচয়পত্র, মেশিন রিড্যাবল, পাসপাের্টসহ, জাতীয় মহাসড়ক, ফ্লাইওভার, আন্ডারপাস নির্মাণে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের ভূমিকা অত্যন্ত গৌরবজনক।

 

'দেশের গণতান্ত্রিক ধারাকে সমুন্নত রাখতে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা সর্বোচ্চ আন্তরিকতা ও নিষ্ঠার সঙ্গে সর্বোচ্চ দায়িত্ববােধ ও শৃঙ্খলাবদ্ধ কর্মপ্রচেষ্টার মাধ্যমে দায়িত্ব পালন করে যাবেন বলে মনে করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী - শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, "আমি বিশ্বাস করি, সর্বাবস্থায় চেইন অব কমান্ড মেনে ও সংবিধানের প্রতি দায়বদ্ধ থেকে বাংলাদেশ গঠনে সশস্ত্র বাহিনীর ভূমিকা সর্বদা অব্যাহত থাকবে”।

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর