• শনিবার   ০৪ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২০ ১৪২৭

  • || ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪১

দৈনিক জামালপুর
৯০

বিকল্প চিকিৎসা ব্যবস্থা খুঁজে বের করতে হবে, বললেন প্রতিমন্ত্রী

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ১৮ জানুয়ারি ২০২০  

বাংলাদেশ সরকারের জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, প্রচলিত চিকিৎসা ব্যবস্থার অনেক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে। অনেক ক্ষেত্রে একটি রোগ নিরাময় করতে গিয়ে আরেকটি রোগের সৃষ্টি হচ্ছে। এ অবস্থায় আমাদের প্রাকৃতিক উৎস থেকে বিকল্প চিকিৎসা ব্যবস্থা খুঁজে বের করতে হবে।

শনিবার দুপুরে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিত ন্যাচারাল প্রোডাক্টস ফর হেলদি লিভিং (স্বাস্থ্যকর জীবন যাপনের জন্য প্রাকৃতিক পণ্য) শীর্ষক তিন দিনের আন্তর্জাতিক সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মাসি বিভাগ এবং ইউরোপের ফাইটোকেমিক্যাল সোসাইটি (পিএসই) যৌথভাবে এ সম্মেলনের আয়োজন করে।

 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে অসংক্রামক ব্যাধির সংখ্যা অনেক বেড়ে গেছে। এ ক্ষেত্রে অ্যালোপ্যাথিক চিকিৎসা এসব রোগের নিরাময়ে কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারছে না। ভেষজ উৎস থেকে প্রাপ্ত আয়ুর্বেদ ও ইউনানী চিকিৎসা এসব ক্ষেত্রে বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে বিশ্বব্যাপী স্বীকৃতি লাভ করেছে। বাংলাদেশ সরকারও আয়ুর্বেদিক, ইউনানী ও হোমিও চিকিৎসাকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে নীতিমালা প্রণয়নের কাজ হাতে নিয়েছে। 

 

তিনি নতুন প্রজন্মকে গাছগাছড়া থেকে প্রাপ্ত চিকিৎসা ব্যবস্থা সম্পর্কে সজাগ করার জন্য সম্মেলনের আয়োজকদের প্রতি আহ্বান জানান। 

 

সম্মেলনের সমাপনী অধিবেশনে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- খুলনা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন, ইউনিমেড ইউনিহেল্থ ফার্মাসিটিক্যালসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোসাদ্দেক হোসেন, যুক্তরাজ্যের জন মুরস বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি এবং বায়োমলিকুলার সায়েন্স স্কুলের পরিচালক ও ইউরোপের ফাইটোকেমিক্যাল সোসাইটির (পিএসই) সভাপতি প্রফেসর সত্য সরকার, বাংলাদেশ ফার্মেসি কাউন্সিলের সাবেক সহ-সভাপতি সুভাষ সিংহ রায়। সভাপতিত্ব করেন এ আন্তর্জাতিক সম্মেলনের চিফ প্যাট্রন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান। 

 

চিফ প্যাট্রন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন, এই সম্মেলনের মাধ্যমে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সক্ষমতার বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। একইসঙ্গে দেশ-বিদেশের বিজ্ঞানীদের সমাবেশ ও তাদের গবেষণালব্ধ আলোচনা, মতবিনিময় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে যৌথ শিক্ষা-গবেষণার নতুন দ্বার উন্মোচন করেছে। 

 

তিনি এ সম্মেলন সফল করার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান এবং বিশেষভাবে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী, জেলা প্রশাসন, বিভিন্ন ফার্মাসিটিক্যালস কোম্পানিকে কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

 

সমাপনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক ফার্মেসি ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. আশীষ কুমার দাস। এ সময় যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জর্ডান, রুমানিয়া, মালয়েশিয়া, ভারত, বাংলাদেশসহ ৭টি দেশের ৩০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক বিজ্ঞানী এবং খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ, ডিন, রেজিস্ট্রার এবং ফার্মেসী ডিসিপ্লিনের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর
জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর