• রোববার   ২৫ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৯ ১৪২৭

  • || ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

দৈনিক জামালপুর

করোনা শনাক্তে প্রতি জেলায় ল্যাব স্থাপনের চেষ্টা চলছে: সচিব

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ৪ জুলাই ২০২০  

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নুরুল ইসলাম বলেছেন, ল্যাব সংকটের কথা বিবেচনা করে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) পরীক্ষার জন্য দেশের প্রতিটি জেলায় পিসিআর ল্যাব স্থাপনের চেষ্টা চলছে।

 

তবে করোনা প্রতিরোধে সবাইকে আরো সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, বিশেষ করে সামনে ঈদুল আযহা কোরবানির হাটগুলোতে স্বাস্থ্য বিধি মেনে বেচা-কেনা হয় এজন্য প্রশাসনের কঠোর নজরদারি বৃদ্ধি করতে হবে এবং ঈদে যারা বাড়ী আসবেন তাদের হোম কোয়ারিন্টেনে থাকতে হবে।

 

বৃহস্পতিবার বিকেলে দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ পরিস্থিতিতে করনীয় বিষয়ক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব ও দিনাজপুর জেলার প্রধান সমন্বয়ক মোঃ নুরুল ইসলাম একথা বলেন।

 

দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মোঃ মাহমুদুল আলমের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় ইমাম, উপজেলা প্রশাসন, চিকিৎসক, পুলিশ প্রশাসন ও জেলা পর্যায়ের বিভিন্ন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় দিনাজপুরে করোনা পরিস্থিতির সর্বশেষ হালনাগাদের বিস্তারিত তুলে ধরেন দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আবু সালেহ মোঃ মাহফুজুল আলম।

 

ধর্ম সচিব নুরুল ইসলাম বলেন, "বিশ্বের অনেক দেশের তুলনায় এখনো বাংলাদেশ ভালো আছে। আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি এই পরিস্থিতিকে সামাল দিতে। জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন, চিকিৎসকসহ যারাই এই করোনা পরিস্থিতিতে লড়াই করে যাচ্ছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। তিনি মসজিদের ইমামদের অন্তত তিন ওয়াক্তের নামাজের সময় করোনা প্রতিরোধে সচেতনতামূলক বক্তব্য প্রদানের আহ্বান জানান।

 

তিনি বলেন, আক্রান্তরা যেন হাতের নাগালে চিকিৎসা সুবিধা পায় সেজন্য সক্ষমতা বাড়িয়ে চিকিৎসা ব্যবস্থায় আরো সক্রিয় করতে হবে। সদর ও বিরামপুরে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেশী। এসব এলাকা প্রয়োজনে লকডাউনের আওতায় আনতে উপজেলা প্রশাসন ব্যবস্থা নিবেন।

 

দিনাজপুরে ৪ টি জেলা মিলে একটি পিসিআর ল্যাবে করোনা পরীক্ষার কথা জানিয়ে সচিব বলেন, 'আমরা চেষ্টা করছি প্রতিটি জেলায় একটি করে পিসিআর ল্যাব স্থাপনের জন্য। করোনা পরীক্ষার জন্য যে কীট গুলো সরকারিভাবে সরবরাহ করা হচ্ছে সেগুলো অযথা নষ্ট করা যাবে না। প্রতিটি কীট আনতে সরকারের প্রায় ৫ হাজার করে টাকা খরচ হয়। তাই এই বিদ্যমান পরিস্থিতিতে আমাদের সবাইকে মানবিক হতে হবে।"

 

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুরের পুলিশ সুপার মো. আনোয়ার হোসেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল ইমাম চৌধুরী, সেনাবাহিনীর লে. কর্নেল মামুন, জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ আব্দুল কুদ্দুস, এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. শিবেস সরকার, পৌর মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর