• শনিবার   ০৪ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২০ ১৪২৭

  • || ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪১

দৈনিক জামালপুর
সর্বশেষ:
১৯০

কলেজ ভর্তিতেও থাকছে না কোটা

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

চাকরিতে প্রবেশের মতো এ বছর থেকে দেশের সকল কলেজ ভর্তিতেও কোটা পদ্ধতি বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এটি ছাড়াও একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির ক্ষেত্রে আরো তিনটি পরিবর্তন এনে একটি খসড়া নীতিমালা প্রণয়ন করা হয়েছে। 

 

বৃহস্পতিবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের পক্ষ থেকে আয়োজিত এক সভায় একাদশ শ্রেণির খসড়া নীতিমালা-২০২০ তুলে ধরা হয়। সভায় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি উপস্থিত ছিলেন।

 

আন্তঃশিক্ষা সমন্বয়ক ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের প্রণয়ন করা এই খসড়া নীতিমালায় রেজিস্ট্রেশন ফি বৃদ্ধি, এসএমএস আবেদনও বাতিল করা হয়েছে। তবে মুক্তিযোদ্ধা, প্রবাসী ও বিকেএসপি কোটা আগের মতোই বহাল থাকবে। এছাড়া ভর্তি আবেদন ১০ মে শুরু করে ২৫ জুন শেষ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

 

খসড়া নীতিমালায় ভর্তি প্রক্রিয়ায় জটিলতা ও ব্যয় কমাতে এসএমএসের মাধ্যমে আবেদন প্রক্রিয়া বাতিল করে শুধুমাত্র অনলাইনে আবেদন করার প্রস্তাব করা হয়েছে। ভর্তি নিশ্চয়ন ফি পাঁচ টাকা বাড়িয়ে ১৩৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

 

কোটা বাতিল প্রসঙ্গে বলা হয়েছে, শতভাগ মেধা কোটা ছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিশেষ কোটা হিসেবে ৫ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা, বিকেএসপি ০.৫ এবং প্রবাসী ০.৫ শতাংশ কোটা বহাল রেখে বিভাগীয় ও জেলা সদর, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধস্তন দফতরসমূহের কোটা বাতিল করা হয়েছে।

 

অনলাইনে ১০টি কলেজ বা মাদরাসায় আবেদন করার সুযোগ রাখা হয়েছে। এর জন্য নেয়া হবে ১৫০ টাকা। এজন্য মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ভর্তির আবেদন করতে হবে না। 

 

ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ফি ৫ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া ঢাকার মধ্যে আংশিক এমপিওভুক্ত ও এমপিওবিহীন প্রতিষ্ঠানের বাংলা মাধ্যম ভর্তির জন্য ৯ হাজার ও ইংরেজি মাধ্যমের ভর্তি ফি ১০ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হবে। সব প্রতিষ্ঠানের জন্য উন্নয়ন ফি ৩ হাজার টাকার বেশি করা যাবে না।

 

এছাড়াও মফস্বল ও পৌর এলাকার জন্য ভর্তি ফি নির্ধারণ করা হয়েছে ১ হাজার টাকা, পৌর জেলা সদরে ২ হাজার টাকা, ঢাকা ব্যতীত অন্যান্য মেট্রোপলিটন এলাকায় ৩ হাজার টাকার বেশি নেয়া যাবে না খসড়ায় উল্লেখ করা হয়েছে।

 

সভা শেষে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয়ক ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক জানান, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে খসড়া নীতিমালা চূড়ান্ত করা হবে। 

 

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, শিক্ষা সহায়ক পরিবেশ সৃষ্টির যে বৃহৎ পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে সরকার এই খসড়া তারই অংশ।

 

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর
শিক্ষা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর