• শুক্রবার   ২৯ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪২৭

  • || ০৬ শাওয়াল ১৪৪১

দৈনিক জামালপুর
৫০

জামালপুরে করোনা প্রতিরোধে মাঠে সেনাবাহিনী, শহর ফাঁকা

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ২ এপ্রিল ২০২০  

করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে জামালপুর জেলা শহরসহ সাতটি উপজেলায় কাঁচাবাজার ও ওষুধের দোকানপাট ব্যতীত সকল দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। কিন্তু করোনাভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে লোকজনদের ঘরে পাঠাতে জেলা প্রশাসনের কড়াকড়ির মধ্যেও কয়েক দিন ধরে ঢিলেঢালা পরিবেশ তৈরি হয়।

জামালপুর শহরের প্রধান সড়কসহ অলিগলিতে মানুষের চলাফেরা ও মোড়ে মোড়ে আড্ডা বেড়ে যায়। চলাচল শুরু করে যানবাহন। এ অবস্থা ঠেকাতে আইন-শৃংখলাবাহিনীর সদস্যদের ২ এপ্রিল আরো কঠোরভাবে কাজ করতে দেখা যায়।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী হাকিম মো. আলমগীর হোসেনের নেতৃত্বে সেনা সদস্যরা ২ এপ্রিল সকাল থেকেই মাঠে অবস্থান করেন। জনসাধারণকে ঘরে ফেরার আহ্বানসহ সরকারি আদেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা হাতমাইকে প্রচার করতে দেখা যায় সেনাসদস্যদের। এ সময় শহরের প্রধান সড়কসহ অলিগলিতে লোকসমাগম কমে যায়। বন্ধ হয়ে যায় রিকশাচলাচল। শহরে আসা লোকজনদের মোটরসাইকেল ও রিকশা থেকে নামিয়ে সেনাসদস্যরা তাদের কাছে জানতে চান কি প্রয়োজনে ঘর থেকে বের হয়েছেন তারা। পরে তাদেরকে খুব কড়াভাষায় বুঝিয়ে প্রয়োজনছাড়া ঘর থেকে বের হতে নিষেধ করেন।

এদিকে জেলা পুলিশেও কয়েকদিন কিছুটা ঢিলেঢালাভাব দেখা গেলেও পুলিশ সুপার মো. দেলোয়ার হোসেনের নির্দেশে একই দিন পুলিশও বেশ জোড়ালোভাবে তাদের টহল বাড়িয়ে দিয়েছে। নির্বাহী হাকিমদের নেতৃত্বে শহরের গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে মোটরসাইকেল ও অন্যান্য যানবাহনের চালকদের বেশ শাসাতে দেখা যায়। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু সুফিয়ান ও সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সিবলী সাদিক, জামালপুর সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রাশেদুল হাসানের নেতৃত্বে পুলিশ সারা শহর জুড়ে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করেন। বাইরে থাকা মানুষদের ঘরে ফেরাতে এবং যানবাহন চলাচল বন্ধ করতে এ সময় পুলিশ সদস্যরা কোনোরূপ ছাড় না দেওয়ার মানসিকতা নিয়ে সারা শহর জুড়ে অভিযান পরিচালনা করেন। এতে করে শহর আরো ফাঁকা হয়ে যায়। মানুষজন ঘরে ফিরে যায়।

এ প্রসঙ্গে পুলিশ সুপার মো. দেলোয়ার হোসেন এ প্রতিবেদককে বলেন, ‘কিছুটা শিথিল করায় লোকজন দুয়েকজন করে শহরে আসতে আসতে দেখা যাচ্ছিল শহর ভরে যাচ্ছে। এ অবস্থা চলতে দেওয়া যায় না। করোনাভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে লোকজনকে ঘরেই থাকতে হবে। আগে মানুষের জীবন বাঁচাতে হবে। লোকজনকে ঘরে ফেরাতেই হবে। তাই সরকারি পরবর্তী নির্দেশা না পাওয়া পর্যন্ত জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে সারা জেলায় টহল আরো জোরদারসহ বিভিন্নস্থানে অভিযান অব্যাহত থাকবে।’

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর
জামালপুর বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর