• রোববার   ২৯ নভেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৪ ১৪২৭

  • || ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২

দৈনিক জামালপুর
সর্বশেষ:
কুড়িগ্রামে সাংবাদিকদের সাথে সাইবার অপরাধ বিষয়ক কর্মশালা ষড়যন্ত্রকারীদের থেকে সতর্ক থাকতে আহ্বান জানালেন তথ্যমন্ত্রী ১০ বছরে দেশের সাড়ে পাঁচ লাখ অসহায়দের আইনি সহায়তা দিয়েছে সরকার “করোনার মধ্যেও দেশের সব খাতে উন্নয়ন অগ্রযাত্রা চলমান” দেশে কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে নতুন শিল্পপ্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হচ্ছে কুড়িগ্রামে শিশু ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত দুই সন্তানের জনক গ্রেপ্তার কাজিপুরে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা (আসক) এর যাত্রা শুরু রৌমারীতে ভূমি ও গৃহহীনদের ঘর নির্মাণ উদ্বোধন শিক্ষা ও গবেষণায় এগিয়ে নেয়ার অঙ্গীকারে বশেফমুবিপ্রবি উল্লাপাড়ায় চোরাই গরুসহ কসাই গ্রেফতার

দেশের ঐতিহ্যবাহী পণ্য রক্ষার তাগিদ

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ২৯ অক্টোবর ২০২০  

বাংলার গৌরবময় ঐতিহ্যবাহী পণ্যের মধ্যে তাঁত হারিয়ে যেতে বসেছে। এসব পণ্যের বিলুপ্তি রোধে এখনই উদ্যোগ নিতে হবে। পণ্যের প্রচার, প্রসার ও বাজারজাতকরণে সবাই এগিয়ে এলে নতুন কর্মসংস্থানও সৃষ্টি হবে।

'আমার পণ্য আমার দেশ, ডিজিটাল বাংলাদেশ' স্লোগানে অনলাইনে মাসব্যাপী ঐতিহ্যবাহী তাঁত মেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেছেন অতিথিরা। গতকাল বুধবার ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে মেলার উদ্বোধন করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। বিশেষ অতিথি ছিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ও শিল্প সচিব কে এম আলী আজম।

এসএমই ফাউন্ডেশন ও এএফডিবি তৃতীয়বারের মতো এ মেলার আয়োজন করেছে। অনুষ্ঠানে মেলার বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন অ্যাসোসিয়েশন অব ফ্যাশন ডিজাইনার্স বাংলাদেশের (এএফডিবি) সভাপতি মানতাশা আহমেদ। করোনার কারণে অনলাইনে আয়োজিত এ মেলা চলবে ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত। মেলায় ৭০ স্টলে নকশিকাঁথা, শাড়ি ও কাপড়, পাট, বাঁশ-বেতের পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রি করা হবে। মেলার বিস্তারিত জানা যাবে ফেসবুকের এ পেজে //www. facebook.com/heritagehandloombangladesh

অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, করোনাকালেও 'হেরিটেজ হ্যান্ডলুম ফেস্টিভ্যালের' আয়োজন প্রমাণ করে বাঙালির ঐতিহ্যের শিকড়ের সঙ্গে সম্পর্ক এখনও টিকে রয়েছে। ইতোমধ্যে সরকার তাঁতিদের আর্থ-সামাজিক ও দক্ষতা উন্নয়নে বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়েছে। বন্ধ তাঁতকল চালু করতেও পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, সস্তা সিনথেটিক ও প্লাস্টিকের তৈরি পণ্যের কারণে ঐতিহ্যবাহী অনেক পণ্য হারিয়ে যেতে বসেছে। অথচ বিশ্বজুড়ে বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী পণ্যের চাহিদা রয়েছে। দেশের ঐতিহ্যবাহী ও সম্ভাবনাময় এসব পণ্যকে চিহ্নিত করে সরকারকে সহায়তা করতে এগিয়ে আসতে সবার প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

শিল্প সচিব বলেন, তাঁতশিল্পের বিলুপ্তি রোধে সরকার বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠাসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। জিআই পণ্যের তালিকায় ঐতিহ্যবাহী পণ্যগুলোকে যুক্ত করার উদ্যোগ নেওয়া হবে। সভাপতির বক্তব্যে এসএমই ফাউন্ডেশনের চেয়ারপারসন অধ্যাপক ড. মাসুদুর রহমান বলেন, উদ্যোক্তাদের দক্ষতা উন্নয়ন, পণ্য বাজারজাতকরণ এবং অর্থায়নের সমস্যা সমাধানে কাজ করছে তাদের ফাউন্ডেশন। এতে সুরক্ষা পাবেন ঐতিহ্যবাহী পণ্যের কারিগররাও। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সফিকুল ইসলাম।

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর