রোববার   ২৬ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১২ ১৪২৬   ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

দৈনিক জামালপুর
২৪১

পলাশবাড়ীর বায়োগ্যাস হাউজে পাওয়া মরদেহের হত্যার রহস্য উৎঘাটন

প্রকাশিত: ১৪ জানুয়ারি ২০২০  

গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার বরিশাল ইউনিয়নের ভগবানপুর গ্রামের মৃত আজিজার রহমান বিএসসির পুকুরের পারে হত্যা করে পুকুরের পাশে জৈব বায়ূগ্যাস হাউজের ভিতরে ফেলে রাখে। সেখান হতে পলাশবাড়ী থানা পুলিশ সাগর সরকার শাওন (৩২) নামে এ যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে। এঘটনায় পলাশবাড়ী থানায় জি আর মামলা নং - ০৬ দায়ের করা হয়।

 

এ মামলার সূত্রে মরদেহ উদ্ধারের পর হতে পলাশবাড়ী থানা পুলিশ হত্যার রহস্য উৎঘাটনে ব্যাপক তৎপরতা চালিয়ে অবশেষে হত্যাকান্ডের ৪ দিন পরে হত্যার রহস্য উৎঘাটন করে। হত্যায় জড়িত প্রধান হত্যাকারী নিহত সাগর সরকার শাওনের বড় ভাই তানজির আহম্মেদ কে গ্রেফতার ও হত্যা ব্যবহৃত দা উদ্ধার করে পুলিশ।

 

গত ১১ জানুয়ারী শনিবার জেলা পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার (বি সার্কেল) মইনুল হোসেন এর নেতৃত্বে পলাশবাড়ী থানার ওসি তদন্ত মতিউর রহমান, এস আই সঞ্জয় কুমার সহ সঙ্গীয় র্ফোস আসামীর নিজ বসতবাড়ীর শয়ন ঘর হতে অভিযান চালিয়ে বিছানার তোষকের নিচ হতে হত্যায় ব্যবহৃত দা উদ্ধার ও হত্যাকারীকে গ্রেফতার করে। এরপর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ১২ জানুয়ারী হত্যাকারী তানজির আহম্মেদ কে আদালতে পাঠায়।

 

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, হত্যার শিকার শাওনের স্ত্রীর উপর কুনজর পরে হত্যাকারীর। এরপর হতে নানা সময়ে শাওনের স্ত্রীকে কুপ্রস্তাব দিতো এতে শাওনের স্ত্রী সাড়া না দেওয়ায় হত্যাকারী শাওন কে হত্যা করে। তার স্ত্রীকে পাওয়ায় পথ পরিস্কার করতে এ হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে বলে হত্যাকারীকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়। আরো জানা যায় যে ঘটনার দিন কোমরপুর বাজারে ইসলামী জলসা হওয়ায় মিথ্যা কথা বলে বাজারের পাশে পুকুরের পাড়ে শাওন কে ডেকে নেয় হত্যাকারী তানজির আহম্মেদ। সেই ডাকে সাড়া দিয়ে পুকুর পারে আসে শাওন। এরপর সে শুধু তানজির ছাড়া আর কাউকে দেখতে না পেয়ে ফিরে যেতে ধরলে পিছন হতে দা দিয়ে শাওনের মাথায় একাধিক আঘাত করে এতে শাওন মাটিতে লুটিয়ে পড়ে মারা যায়। এরপর বাজারের দোকান হতে বস্তা নিয়ে এসে শাওন কে বস্তায় ভরে পুকুর পাড় হতে টেনে হেচড়ে পুকুরের পাশে সুজনের বায়োগ্যাস হাউজে ফেলে দেয় এবং মরদেহ যাতে ভেসে না উঠে সেকারনে বস্তার ভিতরে কয়েকটি ইটের টুকরো ভরে দেয় হত্যাকারী। মরদেহ বায়োগ্যাস হাউজে ফেলে রেখে স্বাভাবিক বাড়ীতে ফিরে যায় হত্যাকারী তানজির আহম্মেদ।

 

উলে­খ্য,গত ৬ জানুয়ারী সোমবার রাত আনুমানিক ৯ টা হতে নিখোঁজ ছিলো রাত হতে পরেরদিন সকালে স্থানীয়রা খোঁজাখুজির এ পর্যায়ে পুকুরের পারে রক্তের চিহৃ দেখে জৈববায়ূ গ্যাস হাউজের ভিতর দেখতে পেয়ে পলাশবাড়ী থানা পুলিশ কে খবর দিলে পুলিশের এস আই সঞ্জয়সহ সঙ্গীয় ফোর্স ৭ জানুয়ারী মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় এ যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত মরদেহটির মাথায় একাধিক আঘাতের চিহৃ দৃশ্যমান পাওয়া যায়। নিহত যুবক সাগর সরকার শাওন (৩২) পলাশবাড়ী উপজেলার ভগবানপুর গ্রামের সাবু মিয়ার ছেলে। সে বিবাহিত তার একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। সে কোমরপুর বাজারে ব্যবসায়ি বলে জানা যায়।

 

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর
এই বিভাগের আরো খবর