• সোমবার   ১২ এপ্রিল ২০২১ ||

  • চৈত্র ২৮ ১৪২৭

  • || ২৯ শা'বান ১৪৪২

দৈনিক জামালপুর

বিএনপির মিথ্যাচারের প্রতিবাদে জামালপুর জেলা আ’লীগের সংবাদ সম্মেলন

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

জামালপুর পৌরসভা নির্বাচনের প্রচারণায় বিএনপির প্রার্থীর প্রমাণহীন অপপ্রচার ও মিথ্যাচারের প্রতিবাদে এবং জেলার চারটি পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচারণা ও সার্বিক কর্মকাণ্ড অবহিত করতে ২৪ ফেব্রুয়ারি বিকেলে সাংবাদিক সম্মেলন করেছে জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগ। শহরের বকুলতলায় দলীয় কার্যালয়ে এ সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদিক সম্মেলনের শুরুতে সূচনা বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আইনজীবী মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ। পরে লিখিত বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী বলেন, ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য জামালপুর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন নির্বাচনী আচরণ বিধি মেনে তার সমস্ত নির্বাচনী কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছেন। এসব কর্মকান্ডে ঈর্ষান্বিত হয়ে বিএনপি মনোনীত প্রতিদ্বন্দ্বী মেয়র প্রার্থী শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন সাংবাদিক সম্মেলনসহ বিভিন্নভাবে উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে আসছেন।

গত ২২ ফেব্রুয়ারি আওয়ামী লীগের প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিএনপির প্রার্থী শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুনের সাংবাদিক সম্মেলনকে কাল্পনিক উল্লেখ করে ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী বলেন, বিএনপির প্রার্থী শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জামানত হারিয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আমরণ অনশন করেছিলেন। এবারও তিনি জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পৌর নির্বাচনে অংশ নিয়ে এই নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার লক্ষ্যে সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে মিথ্যা, বানোয়াট ও কাল্পনিক তথ্য দিয়ে সাংবাদিকদেরকেও বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা করেছেন।

তিনি আরও বলেন, বিএনপির সাংবাদিক সম্মেলনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছানোয়ার হোসেন ৪ ফেব্রুয়ারি মনোনয়নপত্র দাখিলের দিন লিফলেট নিয়ে গণসংযোগ করেছেন বলে যে অভিযোগ করা হয়েছে, সেই অভিযোগও সম্পূর্ণ বানোয়াট ও কাল্পনিক। প্রকৃতপক্ষে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছানোয়ার হোসেন তার বাবার অসুস্থতার কারণে ঢাকায় অবস্থান করছিলেন। ওইদিন আমরা দলীয় নেতাকর্মীরা তার মনোনয়নপত্র দাখিল করেছি। মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেনের ছোট ভাই মাছুমের বিরুদ্ধে ১০০ মোটরসাইকেল নিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি দেওয়ার অভিযোগও মিথ্যা ও বানোয়াট।

ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী আরও বলেন, এবার জামালপুর পৌরসভাসহ জেলার চারটি পৌরসভায় ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটাভুটি হবে। সুতরাং ভোটে কারচুপির কোন সুযোগ নেই। আওয়ামী লীগের প্রার্থীর জনপ্রিয়তায় ঈর্শান্বিত হয়ে বিএনপির প্রার্থী তার আগাম পরাজয় বুঝতে পেরেছেন। তাই হয়তো তিনি নির্বাচন থেকে সড়ে দাঁড়ানোর অজুহাত তুলে প্রমাণহীন অভিযোগ করে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছেন। এই ধরনের অপরাজনীতিতে বিভ্রান্ত না হয়ে ২৮ ফেব্রুয়ারি নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে বিএনপির বিরুদ্ধে গণপ্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য ভোটার জনতার প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

এছাড়াও তিনি একই দিনে অনুষ্ঠিতব্য জেলার মাদারগঞ্জ, ইসলামপুর ও দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচারণা ও ভোটপ্রার্থনার সার্বিক চিত্র তুলে ধরেন।

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর