• বুধবার   ০৩ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২০ ১৪২৭

  • || ১১ শাওয়াল ১৪৪১

দৈনিক জামালপুর
৪৪

বিমানে নয়, নৌকায় আকাশ ভ্রমণ!

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ১৫ মে ২০২০  

আকাশে উড়বে জলযান নৌকা? তাও আবার বাংলাদেশে?—শিরোনাম দেখে এমন প্রশ্ন আপনার মনে হতেই পারে। তবে এটি নিছক কোনো গল্প নয়, সত্যি। আকাশে উড়ার স্বপ্ন থাকে অনেকেরই। তবে সাধ্যের সমন্বয় না হওয়ায় অনেকের ইচ্ছে পূরণ হয় না। তাই অল্প খরচে আকাশের উড়ার স্বপ্ন সত্যি করতে এমন উদ্যোগ নিয়েছিল শরীফস অ্যাভিয়েশন।

 

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার বালুয়াকান্দি গ্রামে এই ফ্লাইং বোট সেবা চালু হয়েছিল ২০১৪ সালে। মূলত মেঘনা ভিলেজ হলিডে রিসোর্ট এটি পরিচালনা করতো। এরপরই সেবাটি দেশজুড়ে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে।

 

পাইলটসহ দুইজন ওঠা যায় একটি বোটে। আস্তে আস্তে প্রথমে পানিতে ভাসতে শুরু করে বোটটি। এরপর ওড়ে আকাশে, নিয়ে যায় সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১৫০০ ফুট উচ্চতায়। মাত্র ২ হাজার ২০০ টাকায় আকাশ পথে ১০ মিনিট ভ্রমণ করা যেত। একইভাবে ৩ হাজার টাকায় ১৫ মিনিট, ৫ হাজারে ৩০ মিনিট এবং ১০ হাজার টাকায় ১ ঘণ্টা আকাশে ঘোরা যেত এই বোটে।

 

ইতালির পোলারিশ মোটর কোম্পানি এই বোট তৈরি করেছিল। ২১৬ কেজি ওজনের এই বোট এর ধারণক্ষমতা ৪৫০ কেজি। একবার জ্বালানী নিয়ে এটি আকাশে উড়তে পারে ২ ঘণ্টা ২০ মিনিট। গতি প্রতি ঘণ্টায় আকাশে ৮০ আর পানিতে ৭০ কিলোমিটার। জ্বালানি হিসেবে ব্যবহৃত হতো অকটেন ও মবিল।

 

তবে দুই বছর না যেতেই সেবাটি বন্ধ হয়ে যায়। ফ্লাইং বোটের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে মেঘনা রিসোর্ট কর্তৃপক্ষ জানান, এটি অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ আছে। কবে আবার চালু হবে তা তারা জানেন না। এমনকি বন্ধ হওয়ার কারণ সম্পর্কেও কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি তারা।

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর