সোমবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৫ ১৪২৬   ১১ রবিউস সানি ১৪৪১

দৈনিক জামালপুর
৬৬

রৌমারীতে একটি ব্রীজের অভাবে ১০ গ্রামের মানুষের চরম দূর্ভোগ!

প্রকাশিত: ২৩ নভেম্বর ২০১৯  

কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী উপজেলায় একটি  ব্রীজের অভাবে ১০ গ্রামের ৫০ হাজার মানুষ চরম দূর্ভোগে পড়েছে। দেশ স্বাধীনতার ৪৮ বছর  অতিবাহিত হলেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি ওই অঞ্চলে। এলাকাটি সীমান্তবর্তি হওয়ায় অবহেলা অযতেœ দূর্ভোগের শিকার। কুড়িগ্রামের  রৌমারী উপজেলার যাদুরচর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী এলাকা চর লাঠিয়াল ডাঙ্গা গ্রামের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া জিঞ্জিরাম নদী দ্বারা বিচ্ছিন্ন ১০টি গ্রামের মানুষ। গ্রামগুলি খেয়ারচর, চুলিয়ারচর, আলগারচর, লাঠিয়াল ডাঙ্গা, চর লাঠিয়াল ডাঙ্গা, বাগানবাড়ী, বালিয়ামারী ও নয়াপাড়া। এই অঞ্চলের মানুষের জিঞ্জিরাম নদীর উপর দিয়ে পারাপারের একমাত্র মাধ্যম বাঁশের সাকোঁ। এলাকাটি উপজেলা শহর হতে ২০ কিলোমিটার  দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলীয় সীমান্তঘেষা। 

এলাকার ৫০ হাজার মানুষের দূর্ভোগ লাঘবে   প্রতিবছর ১০ গ্রামের মানুষ স্বেচ্ছা-শ্রমে নিজস্ব অর্থায়নে বাঁশের সাকোঁ নির্মাণ করে যাতায়াত করে থাকে।  প্রতিনিয়ত কোমলমতি স্কুল-কলেজ পড়–য়া  ছাত্র/ছাত্রী জীবনের ঝুকি নিয়ে কখনো বাঁশের সাকেঁ, নৌকা ডিঙ্গীয়ে, কলাগাছের ভেলায় ও নানা উপায়ে নদী পারাপার হয়ে থাকে। এমনকি সড়ক যোগাযোগ অবস্থার ভালো না থাকার অভাবে ওই অঞ্চলের কৃষক ফসলের ন্যায্যমূল্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।  

সরেজমিনে গিয়ে ওই অঞ্চলের মানুষের সাথে সাক্ষাৎকারে জানাযায়, নির্বাচন এলেই  প্রার্থীরা  উন্নয়নের জোয়ার বয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রæতির কথা বললেও কথা কেউ রাখেনি। নির্বাচন শেষে তাদের মাঠে দেখা যায়না। সীমান্ত ঘেষা মানুষগুলো জিঞ্জিরাম নদী দ্বারা যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন আতংকিত জীবন যাপন করে থাকেন। সীমান্তে কোন দূর্ঘটনা ঘটলেও অতিসহজে দ্রæত পুলিশ ও বিজিবি ঘটনাস্থলে যেতে পারেনা। 

এ বিষয়ে  আলহাজ¦ হাছেন আলী (৯০), মুক্তিযোদ্ধা আজিম উদ্দিন (৮৫), বানেছা খাতুন (৮০), তোফাজ্জল হক, আঃ ছাত্তার দেওয়ানী (৯৫), চর পাহার তলী প্রাথমকি বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা রাসিদা খাতুন (৫৫), আব্দুল মজিদ (৬৬), লাল চানঁ (৫৫)সহ আরও অনেকেই জানান, দেশ স্বাধীনের ৪৮ বছর অতিবাহিত হতে যাচ্ছে। কিন্ত আমাদের এ অঞ্চলে  একটি ব্রীজের দাবীতে বারবার আকুতি জানালেও তা কোন কাজে আসেনি।   

এব্যাপারে রৌমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল ইমরান বলেন , বিষয়টি আমি শুনেছি , এনিয়ে উপজেলা সমন্বয় সভায় আলোচনা করা হবে এবং  জনগনের স্বার্থে দ্রæত কার্যকরি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

 

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর