• শনিবার   ২১ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৯

  • || ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩

দৈনিক জামালপুর

মাসিকের ব্যথাসহ ত্বক ও চুলের সমস্যা থেকে মুক্তি দেয় যে পানীয়!

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ৩১ জানুয়ারি ২০২২  

প্রায় প্রত্যেক রান্না ঘরেই পাওয়া যায় এই মশলা। সেলারি ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম, কার্বোহাইড্রেট, অ্যান্টি-ভাইরাল, অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টি-ফাঙ্গাল, প্রোটিন, আয়রন এবং ঔষধি গুণে ভরপুর। এই মশলাটি খাবারে যোগ করলে খাবারের স্বাদ বাড়ানোর পাশাপাশি স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করে।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, মহিলাদের আজওয়াইনের পানি পান করা অত্যন্ত উপকারী হতে পারে। আসুন জেনে নেই এটি বানানোর উপায় ও উপকারিতা: 

মাসিকের ব্যথা থেকে মুক্তি পাবেন মহিলারা:
প্রায়ই মহিলাদের মাসিকের সময় পেটে ব্যথা, শক্ত হয়ে যাওয়া, ইত্যাদি সমস্যা হয়। এর পাশাপাশি ভারসাম্যহীন হরমোনের সমস্যায় ভুগছেন অনেক নারী। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, আজওয়াইনের পানি পান করলে এসব সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

তরুনীদের ত্বকের সমস্যা থেকে মুক্তি দেয়:
আজওয়াইনে অ্যান্টি-ভাইরাস, অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টি-ফাঙ্গাল বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এর পানি ত্বক থেকে ফাঙ্গাসকে দূরে রাখতে সাহায্য করে। এর পাশাপাশি ত্বকের প্রদাহের সমস্যাও উপশম পায়।

চুলের সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন:
অনেক মহিলার চুল সংক্রান্ত সমস্যা যেমন খুশকি, চুল পড়া, স্প্লিট এন্ড ইত্যাদি থাকে। এ থেকে বাঁচতে আজওয়াইনের পানি পান করা কার্যকর বলে মনে করা হয়।

স্তন্যদানকারী মহিলাদের জন্য উপকারী:
অনেক মহিলাই প্রসবের পরে সঠিকভাবে দুধ উত্‍পাদন না করার অভিযোগ করেন। এ কারণে শিশুও পরিপূর্ণ পুষ্টি পায় না। এমতাবস্থায় এই মহিলারা আজওয়াইনের পানি পান করলে আরাম পান। এতে উপস্থিত পুষ্টি উপাদান এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট উপাদান দুধ তৈরিতে সাহায্য করে।

জয়েন্টের ব্যথা থেকে মুক্তি পান:
শীতকালে জয়েন্টে ব্যথার অভিযোগ বেশি হয়। কিন্তু আজওয়াইনে উপস্থিত অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য জয়েন্টের ব্যথা এবং আর্থ্রাইটিস সংক্রান্ত সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে।

ওজন কমাতে সহায়ক:
স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, আজওয়াইনের জল পানি করলে তা শরীরে জমে থাকা অতিরিক্ত চর্বি কমাতে সাহায্য করে। এর ফলে পেট, উরু, কোমরের চারপাশে জমে থাকা চর্বি দূর হয়।

কিভাবে আজওয়াইনের পানি তৈরি করবেন?

এর জন্য প্যানে ১ গ্লাস পানি এবং ১/২ চা চামচ ক্যারাম বীজ রাখুন।

পানি অর্ধেক না হওয়া পর্যন্ত ফুটিয়ে নিন। এবার স্বাদ অনুযায়ী লবণ দিয়ে ছেকে নিন।

প্রস্তুত পানীয়টি শুধুমাত্র হালকা গরম পান করুন।

দ্রষ্টব্য- এই ঘরোয়া রেসিপিটি সাধারণ তথ্যের উপর ভিত্তি করে। এমতাবস্থায়, কী পরিমাণে এটি পান করতে হবে, এটি পান করার আগে অবশ্যই বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর