• রোববার   ২৪ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৯ ১৪২৮

  • || ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দৈনিক জামালপুর

জামালপুরে ওয়ার্ল্ড ভিশনের কর্মশালা

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১  

জামালপুরে বিশেষভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীতে অন্তর্ভুক্তকরণ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২২ সেপ্টেম্বর সকালে জামালপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সভাকক্ষে বেসরকারি সংস্থা ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ ‘নিউট্রেশন সেনসেটিভ ভ্যালু চেইনস ফর স্মল হোল্ডার ফারমার্স’-এনএসভিসি প্রকল্পের উদ্যোগে এ কর্মশালার আয়োজন করে।

জামালপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লিটুস লরেন্স চিরানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ কর্মশালার উদ্বোধন করেন সদর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারজানা ইয়াসমিন লিটা। শুরুতেই মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে বিশেষভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীতে অন্তর্ভুক্তকরণের এনএসভিসি প্রকল্পের আওতায় প্রাক জরিপ প্রতিবেদন তুলে ধরেন ভারপ্রাপ্ত প্রকল্প ব্যবস্থাপক খন্দকার মো. রুহুল আমীন।

জরিপ প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশেষভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীতে অন্তর্ভুক্তকরণের প্রাক জরিপ পরিচালনা করা হয় জেলার ইসলামপুর, দেওয়ানগঞ্জ ও জামালপুর সদর উপজেলায় ২০ হাজার পরিবারের মধ্যে। এর মধ্যে জামালপুর সদর উপজেলায় তিন শ্রেণিতে দুই হাজার ৯৩২ জন বিশেষভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের প্রাথমিকভাবে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। তাদের মধ্যে কিছুই করতে পারেন না রয়েছেন ৩৬০ জন, সামান্য কিছু করতে পারেন রয়েছেন এক হাজার ৮৯ জন এবং অনেক প্রতিবন্ধকতার মধ্যেও কিছু করতে পারেন রয়েছেন এক হাজার ৪৮৩ জন।

কর্মশালায় জরিপ প্রতিবেদনের ওপর মুক্ত আলোচনায় যৌথ কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন পর্বে জরিপে তালিকাভুক্ত বিশেষভাবে সক্ষম ব্যক্তিরা যাতে সরকারি বিভিন্ন সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির তালিকায় নাম থাকা ব্যক্তিরাই না হয়, অর্থাৎ বাদ পড়া ব্যক্তিদের তালিকাভুক্ত করার পরামর্শ দেন আলোচকবৃন্দ।

এ সময় কর্মশালার সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিটুস লরেন্স চিরান ওয়ার্ল্ড ভিশনের এনএসভিসি প্রকল্পের আলোচিত জরিপে পাওয়া বিশেষ ব্যক্তিদের ভালোভাবে যাচাই বাছাই করার লক্ষ্যে তাদেরকে মেডিক্যাল টিমের মাধ্যমে প্রকৃত ব্যক্তিদের শনাক্ত করে তাদেরকে সরকারি সুবর্ণ নাগরিক কার্ড পাওয়ার ব্যবস্থা করার উদ্যোগ গ্রহণের পরামর্শ দেন। এই কাজে কোন সহযোগিতা লাগলে সেই সহযোগিতা করারও আশ্বাস দেন তিনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিটুস লরেন্স চিরান আরও বলেন, ২০৩০ সালের মধ্যে এসডিজি বাস্তবায়ন করতে হলে কাউকে পেছনে ফেলে রেখে এগিয়ে যাওয়া যাবে না। বিশেষভাবে সক্ষম বা প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের প্রতি দৃষ্টিভঙ্গী পরিবর্তন করার আহ্বান জানান তিনি।

কর্মশালায় আলোচনায় অংশ নেন ওয়ার্ল্ড ভিশনের এনএসভিসি প্রকল্পের মনিটরিং ও এভালুয়েশন ব্যবস্থাপক মোফাখখারুল ইসলাম হীরা, জামালপুর সদর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. শাহাদাত হোসেন, উন্নয়ন সংঘের মানবসম্পদ বিভাগের পরিচালক জাহাঙ্গীর সেলিম, উন্নয়ন সংঘের সহকারী কর্মসূচি পরিচালক মোর্শেদ ইকবাল, ওয়ার্ল্ড ভিশনের এনএসভিসি প্রকল্পের জামালপুর সদর উপজেলা সমন্বয়কারী মো. রেজাউল করিম প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন এনএসভিসি প্রকল্পের কর্মকর্তা ছাদেকা বেগম ও নূর-ই-জান্নাত।

অস্ট্রেলিয়ান সরকারের সহায়তায় এনজিও কো-অপারেশন প্রোগ্রাম-এএনসিপি’র অর্থায়নে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ জামালপুর সদর উপজেলায় এবং উন্নয়ন সংঘ ইসলামপুর ও দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় এনএসভিসি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর