• মঙ্গলবার   ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১২ ১৪২৯

  • || ২৯ সফর ১৪৪৪

দৈনিক জামালপুর
সর্বশেষ:
নৌকা ডুবি দূর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারের পাশে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী নন্দীগ্রাম থানার ইন্সপেক্টর তদন্ত আশরাফুল সারিয়াকান্দি বদলি তিন সপ্তাহে এলো ১২৬ কোটি ৫৪ লাখ ডলার রেমিট্যান্স দুর্গাপূজায় নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিতের নির্দেশ আইজিপির ইভিএম নিয়ে ‘ভ্রান্ত’ ধারণা দূর করতে ব্যাপক প্রচারণা চালাবে ইসি প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে তথ্যচিত্র ‘শেখ হাসিনা: আ ট্রু লেজেন্ড’ আসছে ৯ অক্টোবর পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী জামালপুরে আটটি পরিবারের চলাচলের রাস্তায় ঘর তুলল প্রতিবেশী উল্লাপাড়ার কুমার বিল থেকে কৃষকের ভাসমান লাশ উদ্ধার আর্মি এভিয়েশন গ্রুপে যুক্ত হলো কাসা-সি ২৯৫ ডব্লিউ সামরিক বিমান

জামালপুরে যমুনা সার কারখানা ৪৮৬ শ্রমিকের পুনর্নিয়োগ দাবি

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২  

৪৮৬ জন শ্রমিক ছাটাইয়ের প্রতিবাদে জামালপুরের সরিষাবাড়ী যমুনা সার কারখানা (জেএফসিএল)অবরোধ করেছে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা।  শনিবার সকালে অবরোধকারিরা চাকরি ফেরতের দাবিতে সমাবেশ করেছে। খবর পেয়ে কারখানা এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

শ্রমিকদের দাবির প্রতি সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন, পোগলদিঘা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আশরাফুল আলম মানিক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সামস উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আল মামুন, ডোয়াইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল জলিল, সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন রতন, মহাদান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন, পোগলদিঘা মহাবিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যক্ষ মোয়াজ্জেম হোসেন, ট্রান্সপোর্ট সমিতির সভাপতি আবুল হোসেন সরকার, কান্দারপাড়া বাজার সমিতির সভাপতি মাহবুবুর রহমান, পরিবহন শ্রমিক সংগঠনের আহ্বায়ক আক্কাস উদ্দিন প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ১৯৯১ যমুনা সারখানা স্থাপিত হয়। প্রতিবছর কারখানায় চুক্তিভিত্তিক (দৈনিক হাজিরা) শ্রমিক নিয়োগের জন্য ঠিকাদার নিয়োগ করা হয়। সর্বশেষ ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ছিল মেসার্স জান্নাত এন্টারপ্রাইজের মাধ্যমে ৪৮৬জন শ্রমিক নিয়োগ পান। সাখাওয়াত হোসেন মুকুল এই প্রতিষ্ঠানের মালিক। চলতি মাসের শুরুতেই চুক্তিভিত্তিক শ্রমিক নিয়োগের মেয়াদ শেষ হয়। নতুন ঠিকাদার নিয়োগ প্রক্রিয়া চলার একপর্যায়ে ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান আদালতে মামলা দায়ের করলে শ্রমিক কিংবা ঠিকাদার নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত হয়।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম জানান, ঠিকাদার নিজেদের স্বার্থে মামলা করে শ্রমিক নিয়োগ বন্ধ করে নতুন করে সমস্যার সৃষ্টি করেছে।

কারখানার ব্যবস্থাপক (প্রশাসন) দেলোয়ার হোসেন জানান, চুক্তিভিত্তিক ৪৮৬ জন শ্রমিকের মধ্যে ১৯৩ জনের নিয়োগ বিধি মোতাবেক আগেই বাতিল হয়েছে। বাকি ২৯৩ জনের মেয়াদকাল গত ৩১ আগস্ট শেষ হয়। নতুন ঠিকাদার নিযুক্ত করতে দরপত্র আহ্বান করা হয়েছিলো, কিন্তু ঠিকাদারের মামলার কারণে নতুন শ্রমিক নিয়োগ বন্ধ আছে। আমার কি করার আছে?

সরিষাবাড়ী থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল মজিদ জানান, শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।
 

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর