• শনিবার   ২১ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৯

  • || ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩

দৈনিক জামালপুর

নন্দীগ্রামে ঝড়-বৃষ্টিতে লুটিয়ে পড়েছে বোরো ধান

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ২০ এপ্রিল ২০২২  

বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলায় কালবৈশাখী ঝড় ও ভারী বৃষ্টিতে বোরো আধা-পাকাসহ বিভিন্ন ফসল ক্ষতির মুখে পড়েছে। অর্ধশত বিঘা আধা-পাকা ধান শুয়ে পড়েছে। আবহাওয়ার এমন বৈরীতায় মাঠের ফসল নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন কৃষকরা। 

জানা গেছে, বুধবার (২০ এপ্রিল) ভোর রাতে নন্দীগ্রাম উপজেলায় কালবৈশাখী ঝড় ও ভারী বৃষ্টি হয়। আর এতে করে ধান মাটিতে পড়ে যাওয়ায় হতাশ হয়ে পড়েছেন কৃষকরা। তবে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর বলছেন- ফসলের কোনো প্রভাব পড়বে না। এদিকে সোনালি ধানে ছেয়ে গেছে সারা মাঠ। 

কৃষকদের বুকভরা আশা। আর কয়েকদিন পরই মাঠের ফসল ঘরে তুলবে। কৃষকদের সেই আশায় যেন গুড়েবালি দিতে চলেছে কালবৈশাখী ঝড় ও ভারী বৃষ্টি। এতে খেতের কাঁচা, আধাপাকা ও পাকা ধানগাছ মাটিতে পড়ে একাকার হয়ে গেছে। 

পৌরসভার কালিকাপুর গ্রামের কৃষক রাজু আহমেদ জানান, তিনি ১২ বিঘা জমিতে মিনিকেট ধানের আবাদ করেছেন। ধান কাটতে এখনও ৪/৫ দিন বাকী। বাতাসের কারণে ধানগাছ মাটিতে শুয়ে পড়েছে। ঝড় ও বৃষ্টিতে জমিতে পানি জমে বোরো ধানগাছ মাটিতে শুয়ে পড়েছে। ধানগাছ শুয়ে পড়ায় ফলনের বিপর্যয়সহ লোকসানের আশঙ্কা রয়েছে। 

উপজেলার কাথম গ্রামের কৃষক আরিফ হোসেন জানান, তিনি ৮ বিঘা জমিতে বোরো চাষ করেছেন। তার মধ্যে চার বিঘার আধাপাকা ধান একেবারে মাটির সঙ্গে মিশে গেছে। 

উপজেলা কৃষি অফিসার মো. আদনান বাবু বলেন, বৃষ্টি ও ঝড়ো বাতাসের কারণে কিছু জমিতে বোরো ধান হেলে পড়েছে। আশা করা যায় ফলনে তেমন কোনো প্রভাব পড়বে না। 
 

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর