• শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ৯ ১৪৩০

  • || ১১ শা'বান ১৪৪৫

দৈনিক জামালপুর

পর্যটকদের মুগ্ধ করছে ‘ফুরমোন পাহাড়’

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ২১ জানুয়ারি ২০২৪  

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি পাহাড়ি জেলা রাঙ্গামাটি। যেটি রূপের রানী নামে খ্যাত। পাহাড়, মেঘ, ঝিরি-ঝর্ণা, আঁকাবাঁকা পথের সঙ্গে মিশে আছে সুবিশাল মিঠাপানির কাপ্তাই হ্রদ। শহরে প্রবেশের সময় হাতের বাম পাশে দেখা মিলবে সবচেয়ে উঁচু পাহাড় ফুরমোন। 
চাকমা ভাষায় ফুরমোন অর্থ ফুরফুরে মন। পাহাড়ের চূড়ার সৌন্দর্য আপনার মনকে ফুরফুরে করে দেবে। তাই এর নাম ফুরমোন। এ পাহাড়ের মেঘ মিতালি প্রতিনিয়িত পর্যকটদের মুগ্ধ করছে।

জানা গেছে, প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অভাবনীয় স্থান ফুরমোনের উচ্চতা এক হাজার ৫১৮ ফুট। যা শহর থেকে ৭ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এ পাহাড়ের চূড়া থেকে রাঙ্গামাটি শহরের অপরূপ সৌন্দর্য উপভোগ করা যায়। অবলোকন করা যায় চট্টগ্রামেরও কিছু অংশ। আঁকাবাঁকা উঁচু নিচু পাহাড়ি রাস্তা ধরে হাঁটা শুরু করলে উপভোগ করা যায় পাহাড়ি পরিবেশ। রাস্তায় দেখা মেলে জুমের ফসল। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের পাশাপাশি দেখা মেলে পাহাড়িদের দৈনন্দিন জীবন সংগ্রামের চিত্র।

তিন দিক দিয়ে ফুরমোন পাহাড়ে ওঠা যায়। এক রাস্তা দিয়ে গাড়ি নিয়ে সোজা চূড়া পর্যন্ত যাওয়া যায়। একটি রাঙ্গামাটি শহরের মানিকছড়ি সাপছড়ি দিয়ে। এটি খাড়া পথ। এ পথ দিয়ে গেলে সময় কম লাগে। তবে অনেকের কাছেই কষ্টকর। অপরটি সাপছড়ি নাড়াইছড়ি পথ দিয়ে উঠতে হয়। অ্যাডভেঞ্চারপ্রিয় মানুষের কাছে এটি জনপ্রিয় পথ। এ পথ দিয়ে পাহাড়ে উঠতে সময় লাগে বেশি। পথ না চিনলে আপনি হারিয়েও যেতে পারেন। এ পথ দিয়ে যেতে ভাগ্য ভালো থাকলে পাহাড়ি বানরের দেখা পেয়ে যেতে পারেন। 

বর্ষাকালে এ পথে সুন্দর কয়েকটি ঝিরির দেখা মেলে। এ পথ দিয়ে চারশ’র বেশি সিঁড়ি বেয়ে উপরে উঠতে হয়। সিঁড়িতে ওঠার পর সর্বপ্রথম চোথে পড়বে ফুরমোন বৌদ্ধবিহার। এটিই ফুরমোনের সর্বোচ্চ চূড়া। যোগাযোগ ও অবকাঠামোগত উন্নয়ন করা হলে ফুরমোন পর্যটকদের কাছে আরো আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে এবং রাঙ্গামাটি ভ্রমণে আসা দেশি-বিদেশি পর্যটকদের পর্যাপ্ত আনন্দ দেবে বলে আশা স্থানীয়দের।

যেভাবে যাওয়া যাবে: ঢাকার ফকিরাপুল, কলাবাগানসহ বিভিন্ন কাউন্টার থেকে রাঙ্গামাটির উদ্দেশে বিভিন্ন পরিবহনের বাস চলাচল করে। মানভেদে ভাড়া ৮০০ থেকে ১ হাজার ৫০০ টাকা। 

রাঙ্গামাটি পৌঁছে শহর থেকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় ফুরমোন পাহাড়ের পাদদেশে যাওয়া যায়। চট্টগ্রামের অক্সিজেন বাসস্টেশন থেকে পাহাড়িকা বাসে সাপছড়ি নেমে যান। জনপ্রতি ভাড়া ১৭০ টাকা। 

রাঙ্গামাটি শহরের বনরুপা, নিউ মার্কেটসহ যে কোনো স্থান থেকে অটোরিকশায় করে ফুরমোনের পাদদেশে যেতে পারেন। এক্ষেত্রে লোকাল জনপ্রতি ৫০-৬০ টাকা অথবা রিজার্ভ করলে ৩০০-৩৫০ টাকা ভাড়া পড়বে।

ফুরমোনের চূড়ায় উঠতে অবশ্যই পাহাড়ে উঠার অভ্যাস থাকতে হবে। আরামে যেতে চাইলে সাপছড়ি নাড়াইছড়ি দিয়ে সিএনজি অটোরিকশা নিয়ে যেতে পারেন। যাওয়ার আগে পানি, খাবার নিয়ে নিতে হবে। পাহড়ের রাস্তায় কোনো দোকান নেই।

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর