• রোববার ২১ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • বৈশাখ ৮ ১৪৩১

  • || ১১ শাওয়াল ১৪৪৫

দৈনিক জামালপুর
সর্বশেষ:

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ার ২৫টি স্থানে সরস্বতী প্রতিমার হাট

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  

আগামীকাল বুধবার সনাতন ধর্মালম্বীদের সরস্বতী পূজা। জেলার কোটালীপাড়া উপজেলার অন্তত ২৫টি স্থানে সরস্বতী প্রতিমার হাট বসে। সনাতন ধর্মালম্বীদের কাছে বিদ্যা, জ্ঞান, বাণী ও সুরের দেবী সরস্বতী। সরস্বতীপূজার প্রতিমা বিক্রির জন্য গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার কালিগঞ্জ, পীড়ারবাড়ী, কান্দি, ধারাবাশাইল, শুয়াগ্রাম, চৌধূরীরহাট, ঘাঘর বাজার, বান্দল, রামশীল, জহরেরকান্দি, ওয়াপদারহাট, নৈয়ারবাড়ি,রাধাগঞ্জ, ভাঙ্গারহাট, মনোহর মার্কেট, পশ্চিমপাড়, রাজাপুর, কুশলা, লাখিরপাড় ও হিরণে প্রতিমার হাট বসে। এসব হাট থেকে সানাতন ধর্মাবলম্বীরা সরস্বতী প্রতিমা কিনে নিয়ে পূজা করেন। প্রতিবছর জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং সনাতন ধর্মালম্ভীদের বাড়ি-বাড়ি ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য পরিবেশের মধ্যে দিয়ে এ সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলার হিরণ গ্রামের তাপস পাল বলেন, কোটালীপাড়া উপজেলার অন্তত ২৫টি স্থানে শতবছর ধরে সরস্বতী প্রতিমার হাট বসে। আমাদের পূর্ব পুরুষেরা এসব হাটে প্রতিমা বিক্রি করতেন। আমরাও প্রতিমা তৈরী করে এসব হাটে বিক্রি করছি। এখানের প্রতিটি হাটে আমাদের তৈরী প্রতিমা বেশ বিক্রি হয়। এই প্রতিমা বিক্রি থেকে আমাদের আয় হয় তা দিয়ে আমাদের সংসার চলে। তিনি বলেন, এ অঞ্চলের সনাতন ধর্মের শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ও ঘরে-ঘরে এ পূজা করে থাকে। এ কারণেই প্রতিটি হাটেই প্রতিমার ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। এ সব হাটে ১ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত বিভিন্ন সাইজের প্রতিমা বিক্রি হয়। ডুমুরিয়া গ্রামের দিবস ভাবুক বলেন, প্রতিবছর আমাদের বাড়িতে সরস্বতী পূজা করে থাকি। এ বছরও আমরা বাড়িতে পূজা করবো। এ জন্য উপজেলার ঘাঘর বাজার থেকে ১ হাজার টাকা দিয়ে একটি সরস্বতী প্রতিমা ক্রয় করেছি। কোটালীপাড়া শেখ লুৎফর রহমান আদর্শ সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী শিব পোদ্দার বলেন, আমরা সনাতন ধর্মের শিক্ষার্থীরা বিদ্যা লাভের আশায় দেবী সরস্বতীর পূজা করে থাকি। প্রতিবছরের মতো এ বছরও আমরা এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পূজার আয়োজন করেছি। এ জন্য আমরা বান্দল গ্রামের পাল বাড়ি থেকে ৬হাজার টাকা দিয়ে একটি সরস্বতী প্রতিমা ক্রয় করেছি। শুয়াগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান যজ্ঞেশ^র বৈদ্য অনুপ বলেন, কোটালীপাড়া উপজেলা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নিজ নির্বাচনী এলাকা। এখানে সব ধর্মের মানুষ শান্তিপূর্নভাবে সহ অবস্থান করছেন। এ উপজেলায় প্রতিবছর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ঘরে ঘরে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হয়। এ পূজাকে কেন্দ্র করে ৪/৫ দিন আগে থেকেই উপজেলার প্রায় ২০/২৫ স্থানে প্রতিমারহাট বসে। এসব হাটে উৎসবমুখর পরিবেশে ক্রেতা-বিক্রেতারা প্রতিমা কেনাকাটা করেন। কোটালীপাড়ায় ঐতিহ্যবাহী প্রতিমার হাটগুলো আরো শত-শত বছর টিকে থাকবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর