• বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৩০ ১৪৩১

  • || ০৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

দৈনিক জামালপুর

কঙ্গনার গালে থাপ্পড় নিরাপত্তাকর্মীর, দেশজুড়ে তোলপাড়

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ৭ জুন ২০২৪  

ভারতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও বিজেপি দলীয় সদ্য নির্বাচিত সংসদ সদস্য কঙ্গনাকে থাপ্পড় মেরেছেন দেশটির সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্সের (সিআইএসএফ) এক নারী কর্মী। এ ঘটনায় দেশজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৬ জুন) চণ্ডীগড় বিমানবন্দরের নিরাপত্তা পয়েন্ট পার হওয়ার সময় কঙ্গনার গালে কষিয়ে থাপ্পড় মারেন নিরাপত্তাকর্মী কুলিন্দর কৌর।

কী কারণে ওই অভিনেত্রীর গালে ক্ষোভ ঝারলেন নিরাপত্তাকর্মী কুলিন্দর। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, ‘কৃষকদের বিক্ষোভ সম্পর্কে অভিনেত্রীর একটি পুরোনো মন্তব্যে তিনি ক্ষুব্ধ ছিলেন।‌‌’

তিনি বলেন, ‘কঙ্গনা একটি বিবৃতি দিয়েছিলেন... কৃষকরা ১০০ রুপির বিনিময়ে বিক্ষোভে বসেছেন। তিনি কী ১০০ রুপির জন্য বিক্ষোভে বসবেন? এই বক্তব্য দেওয়ার সময় আমার মা সেখানে বসে প্রতিবাদ করছিলেন...।’

ভারতের সিআইএসএফের কনস্টেবল কুলিন্দর কৌর কৃষক পরিবারের সন্তান। কঙ্গনাকে থাপ্পড়ের ঘটনায় তাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এই ঘটনায় তার বিরুদ্ধে থানায় মামলাও করা হয়েছে।

দেশটির সদস্য সমাপ্ত ১৮তম লোকসভা নির্বাচনে হিমাচল প্রদেশের মান্ডি আসনে জয় পেয়েছেন বিজেপি প্রার্থী কঙ্গনা রনৌত। বৃহস্পতিবার চণ্ডীগড় বিমানবন্দর থেকে দিল্লিতে যাওয়ার সময় হেনস্তার শিকার হয়েছেন তিনি। কুলিন্দর কৌর বলেছেন, কৃষকদের অসম্মান করায় ওই প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন তিনি।

এদিকে, দিল্লি পৌঁছানোর পর ‘পাঞ্জাবে সন্ত্রাসবাদ বাড়ছে’ বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন কঙ্গনা। এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেছেন, ‘ঘটনাটি বিমানবন্দরের নিরাপত্তা চেক-ইনের সময় ঘটেছে। ওই নারী গার্ড আমার জন্য অপেক্ষা করছিলেন। তারপরে তিনি এসে আমাকে আঘাত করলেন...। আমি তাকে জিজ্ঞেস করলাম, কেন তিনি আমাকে মারলেন।’

কঙ্গনা বলেন, ‘আমি কৃষকদের সমর্থন করি। এখন আমি নিরাপদ... কিন্তু পাঞ্জাবে সন্ত্রাসবাদ বৃদ্ধি পাওয়ায় আমি উদ্বিগ্ন। আমরা সেটা কীভাবে মোকাবিলা করবো?’

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দ্রুত ভাইরাল হয়ে যাওয়া ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, কঙ্গনা রনৌতকে বিমানবন্দরের নিরাপত্তা চেক-ইন কাউন্টারে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ওই সময় নিরাপত্তাকর্মী কুলিন্দর কৌর সেখানে পৌঁছান এবং তর্ক-বিতর্ক শুরু করেন। এর ফাঁকে কঙ্গনার গালে চড় মারলেও ভাইরাল ভিডিওতে সেই দৃশ্য দেখা যায়নি।

হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী নবাব সিং সাইনি বলেছেন, ‘অভিনেত্রীকে হেনস্তার ঘটনা তদন্ত চলছে। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এটা দুঃখজনক, নিরাপত্তার সাথে জড়িত একজন নারী এই ঘটনায় সংশ্লিষ্ট। সেখানে যা হয়েছে তা ভুল...।’

২০২০ সালে ভারতের পার্লামেন্টে পাস হওয়া তিনটি কৃষি আইনের বিরুদ্ধে দেশজুড়ে কৃষক আন্দোলন শুরু হয়। ওই সময় এক্সে দেওয়া এক বার্তায় আন্দোলনে অংশ নেওয়া কৃষকদের নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন কঙ্গনা। যা দেশটিতে ব্যাপক সমালোচনা সৃষ্টি করে। এক্সে দেওয়া পোস্টে সেই সময় কঙ্গনা বলেছিলেন, ‘তিনি বিক্ষোভে একজন বয়স্ক নারীকে অংশ নিতে দেখেছেন। তিনি ১০০ রুপির বিনিময়ে বিক্ষোভে বসেছেন বলে জানিয়েছেন।’ এই পোস্টের তীব্র সমালোচনা শুরু হলে তা ডিলিট করতে বাধ্য হন কঙ্গনা।

২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে কৃষক আন্দোলনের ঘটনায় ভারতের বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকারের তীব্র সমালোচনা করে আন্তর্জাতিক পপ তারকা রিহান্না বলেছিলেন, আমরা কেন কৃষকদের এই আন্দোলন নিয়ে কথা বলছি না? রিহান্নার এমন প্রশ্নের জবাব দিয়ে সেই সময় গণমাধ্যমের শিরোনাম হয়েছিলেন কঙ্গনা। তিনি বলেছিলেন, ‘বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারীদের কেউই কৃষক নন। যে কারণে কেউই এটা নিয়ে কথা বলছে না। তারা সন্ত্রাসী। ভারতকে ভাগ করার চেষ্টা করছেন। যাতে আমাদের দুর্বল ভঙ্গুর দেশটি দখল ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মতো উপনিবেশে পরিণত করতে পারে চীন। আপনি বোকা চুপ থাকুন। আমরা আমাদের দেশকে তোমাদের মতো ডামি বানিয়ে বিক্রি করছি না।’ পরে এই পোস্ট নিয়েও তীব্র সমালোচনা শুরু হলে তা ডিলিট করে দেন কঙ্গনা।

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর