• সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৩০ ১৪৩১

  • || ০৭ মুহররম ১৪৪৬

সর্বশেষ:

গোপালগঞ্জের ঘরে-ঘরে আজ উদযাপিত হচ্ছে লক্ষ্মীপূজা

দৈনিক জামালপুর

প্রকাশিত: ২৮ অক্টোবর ২০২৩  

যথাযোগ্য ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে আজ শনিবার জেলার ঘরে-ঘরে উদযাপিত হচ্ছে সনাতন ধর্মালম্বীদের ধর্মীয় উৎসব লক্ষ্মীপূজা।
আজ শনিবার ভোর ৪টা ১২ সেকেন্ডে কোজাগরী পূর্ণিমা শুরু হয়েছে।এদিন দিবাগত রাত ২টা ২৬ মিনিট পর্যন্ত পূর্ণিমা তিথি রয়েছে। 
দুপুর থেকে এ জেলায় দেবীর বন্ধনা শুরু হবে।চলবে গভীররাত পর্যন্ত।
পুরোহিত দিপংকর চক্রবর্তী বলেন, সনাতন (হিন্দু) শাস্ত্র অনুসারে, ভগবান বিষ্ণুর স্ত্রী লক্ষ্মী সম্পদ, সৌভাগ্য, শক্তি, বিলাসিতা, সৌন্দর্য, উর্বরতা এবং মঙ্গলময়তার দেবী। তিনি প্রকৃতির সুন্দর এবং দানশীল দিকের প্রতিনিধিত্ব করেন। তাই দেবীর কৃপা লাভের আশায় আজ শনিবার দুপুর থেকে লক্ষ্মীপূজা করা হবে।। এ পূজা সাধারণত সনাতন ধর্মালম্বীদের ঘরে ঘরে অনুষ্ঠিত হয়। সর্বজনীনভাবে খুব কম মন্ডপে এ পূজা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে।
ওই পুরোহিত বলেন, যারা তার অনুগ্রহের যোগ্য তাদের শক্তি, আনন্দ এবং সমৃদ্ধি দেন তিনি (লক্ষ্মী)। তার আশীর্বাদ পেতে, ভক্তকে অবশ্যই জীবনের আইনকে সম্মান করতে হবে ও অস্তিত্বের বিস্ময়কর প্রশংসা করতে হবে।
গৃহবধূ উর্মিলা সরকার বলেন, ঐতিহ্যগতভাবে সনাতন (হিন্দু) নারীরা এ পূজা উদযাপন করেন। তাই আমরা এ উপলক্ষে উপবাস থাকব। গৃহের উপাসনার আসনে বেদীর মূর্তি/পট স্থাপন করব। লক্ষ্মীর পাশে থাকবে কলা বউ বা নারকেল বউ। ঘরের মেঝতে লক্ষ্মীর পায়ের ছাপ ও অল্পনা দেব। আলোকসজ্জায় পুরো ঘর আলোকিত করব । 
আমরা স্নান সেরে নতুন বা পরিষ্কার বস্ত্র পরিধান করে ঘরে বসে লক্ষ্মীর আরাধনা করব।
ওই গৃহবধূ আরো বলেন, আমাদের বিশ্বাস লক্ষীদেবী দর্শনে সন্তুষ্ট হলে পরিবারে আর্থিক সমস্যা হবে না ও সংসারে সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য বাড়বে।
দেবী লক্ষ্মীর পূজার পর, মন্দির ও বাড়িতে অঞ্জলি দেওয়া হবে। সুরে সুরে নারীরা পড়বেন লক্ষ্মী পাঁচালী। এরপর তারা উপবাস ভেঙ্গে বিতরণ করবেন প্রসাদ । 

দৈনিক জামালপুর
দৈনিক জামালপুর